লেওয়ানডস্কিদের পিছনে ফেলে ‘খেলাধুলার অস্কার’ জিতেছেন নাদাল

অস্কার জিতলেন রাফায়েল নাদাল! কি চক্ষু চড়কগাছ? না ঠিকই পড়েছেন। তবে সিনেমার কোনও অস্কার নয়। স্পোর্টসের অস্কার জিতেছেন তিনি। ক্রীড়ার অস্কার খ্যাত লরিয়াস ওয়ার্ল্ড স্পোর্টসের ‘প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার’ জিতেছেন এই তারকা টেনিস খেলোয়াড়।

২০০০ সাল থেকে প্রতিবছর বিভিন্ন ক্যাটগরিতে ক্রীড়া ব্যাক্তিত্বদের পুরষ্কৃত করে আসছে লরিয়াস ওয়ার্ল্ড স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড। যেটি খেলাধুলার অস্কার নামে বহুল পরিচিত। মোট ১০ টি ক্যাটাগরিতে দেয়া হয় এই পুরষ্কার।

এবছর সবচেয়ে আকর্ষণীয় ক্যাটগরি প্লেয়ার অব দ্য ইয়ারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছিলেন: রবার্ট লেওয়ানডস্কি, লেব্রন জেমস, লুইস হ্যামিল্টনদের মত রথী-মহারথীরা। তবে সবাইকে পেছনে ফেলে এক দশক পর নিজের দ্বিতীয় লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন নাদাল। সর্বশেষ ২০১১ সালে এই পুরষ্কার জিতেছিলেন তিনি।

গত বছর ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনালে জোকোভিচকে হারিয়ে ২০তম গ্র‍্যান্ডস্লাম জিতে নেয়ার পুরষ্কার হিসেবেই মূলত এই সম্মাননা পেলেন নাদাল। টেনিসে নারী বিভাগে বর্ষসেরা হয়েছেন আরেক টেনিস তারকা নওমি ওসাকা।

বর্ষসেরা দল হিসেবে জয়ী হয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ সহ এক মৌসুমে মোট ৬ টি ট্রফি জয়ী দল বায়ার্ন মিউনিখ। এর আগে বার্সেলোনা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড সহ কয়েকটি দল এই পুরষ্কার ১বার করে জিতলেও প্রথম দল হিসেবে দুইবার এই পুরস্কার পেলো জার্মানির ক্লাবটি। মোহাম্মদ সালাহ জিতেছেন বেস্ট ইন্সপিরেশন অ্যাওয়ার্ড।

কানাডিয়ান স্নো-বোর্ডার ম্যাক্স পোরেট জিতেছেন সবচেয়ে আবেগি পুরষ্কারটি। ক্যান্সার জয় করে ফেরায় তিনি জিতেছেন বেস্ট কামব্যাক অফ দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড।

করোনা মহামারির জন্য ক্রীড়াঙ্গনের বহুল সম্মানজনক এই পুরস্কার ঘোষণায় করার সময় এবার ছিলো না কোনো লাল গালিচা বা জাকজমকপূর্ণ কোনো আয়োজন। ভার্চুয়াল এক অনুষ্ঠানে বৃহস্পতিবার রাতে ঘোষণা করা হয়েছে বিজয়ীদের নাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *