ক্রিকেট থেকে বিরতিতে রবিনসন

ক্রিকেটই তাকে নায়ক বানিয়েছিল, আবার পরমুহূর্তে এই ক্রিকেটই তাকে বানিয়েছে খলনায়ক। ইংলিশ পেসার অলি রবিনসন টেস্ট অভিষেকের পরপরই যে শাস্তি ভোগ করছেন, তা ইতিহাসে বিরল। এই দুঃসময়ে ক্রিকেট থেকে দূরে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

ইংল্যান্ডে শুরু হতে চলেছে কাউন্টি দলগুলোর টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট। তবে জনপ্রিয় এই টুর্নামেন্টের শুরুতে খেলবেন না রবিনসন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে তার দল সাসেক্স।

সাসেক্স জানিয়েছে, রবিনসন বর্তমানে ক্রিকেট থেকে দূরে থাকতে চাইছেন। এই সময়ে তাকে মানসিক সমর্থনের আশ্বাস দিয়েছে ক্লাবটি।

সাসেক্সের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘কঠিন এক সপ্তাহ কাটানোর পর রবিনসন ক্রিকেট থেকে ছোট্ট বিরতি নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এই সময়টা সে পরিবারের সাথে কাটাবে। খেলোয়াড় এবং স্টাফদের উন্নতিকে ক্লাব সবচেয়ে প্রাধান্য দেয়, বিশেষ করে মানসিক স্বাস্থ্যর বিষয়টি। তাই রবিনসনের এই সিদ্ধান্তকে সাসেক্স পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছে।’

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, রবিনসন যখনই ফিরতে চাইবেন, তার জন্য খোলা থাকবে সাসেক্সের দরজা। তবে রবিনসনের ৮-৯ বছর আগের বক্তব্যকে সমর্থন করেনি সাসেক্স।

২৭ বছর বয়সী এই পেসার গত সপ্তাহে ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড লর্ডস টেস্ট দিয়ে পাঁচ দিনের মর্যাদার ফরম্যাটে অভিষেক ঘটিয়েছেন। ম্যাচজুড়ে বল হাতে সমীহ জাগানিয়া পারফরম্যান্স করেছিলেন। এমনকি খেলা শুরুর আগে কালো টিশার্ট পরে দলের বর্ণবাদ ও লিঙ্গবৈষম্যবিরোধী অবস্থানেও অংশ নিয়েছিলেন।

ম্যাচ শুরুর পর জানা যায়, ২০১২ থেকে ২০১৪ সালে টুইটারে এশীয় নারী এবং মুসলিমদের নিয়ে বর্ণবাদী মন্তব্য করেছিলেন তিনি। রবিনসন যখন কিউই ব্যাটসম্যানদের সামলাচ্ছেন, তখন একে একে ভাইরাল হতে থাকে তার পুরনো টুইট। দিনের খেলা শেষে তাই ক্ষমা চাইতে হয়েছে তাকে। তাতে অবশ্য শাস্তির হাত থেকে মুক্তি মেলেনি। ইসিবি তাকে ইংল্যান্ড দল থেকে বহিষ্কার করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *