তন পেলে ‘দায়বদ্ধতা’ বেড়ে যাবে বলছেন ফুটবলাররা

জাতীয় দলের ফুটবলারদের বেতনের আওতাভুক্ত করার পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। এই পরিকল্পনা বাস্তবারিত হলে ফুটবলারদের দায়িত্বের জায়গাও বেড়ে যাবে বলছেন সাদ উদ্দিন ও আশরাফুল রানা।

আজ ফুটবল ফেডারেশন ভবনে জাতীয় দলের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার আলোচনা সভা শেষে বাফুফে সভাপতি জানান, বেতনের আওতাভুক্ত হতে যাচ্ছেন জাতীয় দলের ফুটবলাররা, যেখানে তিন গ্রেডে থাকবেন ত্রিশ ফুটবলার।

যদিও এই কার্যক্রম এখনো পরিকল্পনাধীন, তবে বাস্তবায়িত হলে ফুটবলারদের দায়বদ্ধতা বেড়ে যাবে বলছেন জাতীয় দলের ফুটবলার সাদ উদ্দিন ও আশরাফুল রানা। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সাথে জাতীয় দলের ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনায় বসেছিলেন ইঞ্জুরির কারনে কাতার যেতে না পারা সাদ উদ্দিন, আশরাফুল রানা সহ ৫ ফুটবলার।

২০১৯ সালে সল্ট লেকে ভারতের বিপক্ষে গোল করে হিরো বনেছিলেন সাদ উদ্দিন। তার সেই এক গোলেই ভারত থেকে পয়েন্ট নিয়ে ফিরেছিল বাংলাদেশ। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বাকি থাকা তিন ম্যাচের দুটি ম্যাচ ইতমধ্যে খেলে ফেলেছে জামাল ভুইয়ারা। তবে সে দলের সাথে কাতার যেতে পারেননি সাদ উদ্দিন। ক্যাম্পে থাকা অবস্থায় ইঞ্জুরির কারনে ছিটকে যান তিনি। যেকারনে বাফুফে বসের সাথে আলোচনায় ছিলেন তিনিও। বেতনের আওতাভুক্তের সিদ্ধান্ত, ফুটবলারদের জন্য ভাল হবে বলে মনে করছেন তিনি। আরো বলেন,

“এটা ভাল লাগছে, এটা হলে আমরা আর্থিক সাপোর্ট পাব। এতে ফুটবলারদের দায়বদ্ধতা বাড়বে, এটা যদি ধারাবাহিকতায় থাকে তবে প্লেয়াররা জাতীয় দলে আরো আসতে চাইবে, আরো বেশি ভাল খেলার চেস্টা করবে।”

“সব কিছুর পিছনে একটা আর্থিক সাপোর্ট দরকার, এটা যদি ধারাবাহিক থাকে তবে প্লেয়ারদের জন্য আরো ভাল হবে। গ্রেড করে দেয়ায় সবাই চাইবে গ্রেড ওয়ানে আসতে, এতে আরো ফাইটিং হবে, এটা অনেক ভাল হবে।”

এদিকে জাতীয় দলের অভিজ্ঞ গোলকিপার আশরাফুল রানাও ইঞ্জুরির কারনে যেতে পারেনি কাতার। যে কারনে আজ বাফুফে সভাপতির সাথে আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন তিনি। সভা শেষে বেতনের আওতাভুক্তের সিদ্ধান্তে সাধুবাদ জানিয়েছেন। তিনি আরো বলেন,

“পারশ্রমিকের ব্যাপারে ক্লাব থেকে আমরা টাকা পাই কিন্তু জাতীয় দল থেকে আমরা তো তেমন টাকা পাই না। এরকম বেতনের আওতাভুক্ত হলে প্লেয়াররা আর্থিক সুবিধা পাবে সাথে পার্ফরমেন্সের ক্ষেত্রেও এটা ভাল হবে, খেলোয়াড়দের আরো দায়িত্ব বেড়ে যাবে।”

“আমরা বলে আসছি (কাজী সালাউদ্দিনকে) এটা যদি হয় তবে অবশ্যই আমাদের জাতীয় দলের জন্য ভাল। দেখেন, করোনার মধ্যে সবাই একটা সমস্যার মধ্যে গেছে।”

এ মাসে ২২ জুন থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বাকি অংশ। লিগে পার্ফরমেন্স করা ফুটবলারদেরকে বাছাই করে ৩০ জনের স্কোয়াড গড়া হবে বলে জানান কাজী সালাউদ্দিন। আর এই বাছাইয়ের দায়িত্বে থাকবেন বিদেশি টেকনিকেল কমিটি, থাকতে পারে দেশি দুই-একজনও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *