টি-২০ বিশ্বকাপই কোহলির ভাগ্য নির্ধারণ করবে

পরিসংখ্যানের বিচারে কোহলির অধিনায়কত্বে ভারত টি-টোয়েন্টিতে ৬৫ শতাংশ এবং ওয়ান ডেতে ৭০ শতাংশের অধিক ম্যাচ জিতেছে। পরিসংখ্যানের বিচারে ব্যাটিং হোক বা অধিনায়কত্ব সবেতেই যে কাউকে টেক্কা দেন বিরাট কোহলি।

টি-টোয়েন্টিতে বিরাটের অধীনে ভারতীয় দলের জয়ের হার শতকরা ৬৫ শতাংশ, ওয়ান ডে ক্রিকেটে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৭০-এ। তবে ক্রিকেট তো কোনদিনই শুধু পরিসংখ্যানের খেলা নয়। তাই সাফল্য সত্ত্বেও বিরাটের অধিনায়কত্ব নিয়ে উঠছে একাধিক প্রশ্ন। বিরাটের অধিনায়কত্ব মূলত প্রশ্নচিহ্ন তাঁর আইসিসি খেতাব জয়ের ব্যর্থতা নিয়ে।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, বিশ্বকাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও সাম্প্রতিক বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ, সব টুর্নামেন্টেই তীরে এসে তরী ডুবেছে কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলের। চলতি বছরের শেষের দিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাধ্যমে ফের একবার ট্রফি জয়ের হাতছানি বিরাট কোহলির সামনে। আসন্ন বিশ ওভারের বিশ্বকাপই বিরাটের অগ্নিপরীক্ষা হতে চলেছে বলে মনে করছেন প্রাক্তন জাতীয় নির্বাচক সাবা করিম।

সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে সাব বলেন, ‘এ বছরের শেষে আয়োজিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অধিনায়ক কোহলির কেরিয়ারের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ওর ওপর চাপ বাড়ছে এবং কোহলি নিজেও জানে যে ও এখনও কোন আইসিসি খেতাব জিততে পারেনি (অধিনায়ক হিসাবে)। তাই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয়ই ওর প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত।’

বিশ্বকাপ খেতাব জয় কোহলিকে অধিনায়ক হিসাবে ভাবনাচিন্তার সময় দেবে বলে মনে করছেন প্রাক্তন ভারতীয় উইকেটরক্ষক। ‘বিশ্বকাপে ভারত জিতলে কোহলি আরেকটু সময় হাতে পাবেন। তারপর ও না হয় বিচার বিবেচণা করে কতদিন অবধি দলের অধিনায়ক হিসাবে খেলা চালিয়ে যাবে তা স্থির করতে পারবে। ওর নাম কিংবদন্তি ভারতীয় অধিনায়কদের তালিকায় থাকলেও,

আইসিসি ট্রফি জয় অনেকটাই দূরে।’ মত সাবা করিমের। তাই টি-২০ বিশ্বকাপ হারলে কেড়ে নেওয়া হতে পারে কোহলির অধিনায়কত্ব!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *